বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা : প্রধানমন্ত্রী

Must Try

গুরুতর অসুস্থ্য অবস্থায় আইসিইউতে আল্লামা শফি

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফিক বেশ কিছু দিন যাবত হৃদরোগসহ বার্ধক্যজনিত নানা জটিল রোগে ভুগছেন। বৃহস্পতিবার মধ্যরাতে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে...

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্যু

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও নতুন করে ১ হাজার ৫৪১ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এসময় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের। এ নিয়ে...

সিক্স প্যাকের রহস্য ফাঁস করলেন আরিফিন শুভ

চরিত্রের প্রয়োজনে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রূপ ধারণ করতে হয় একজন অভিনেতা বা অভিনেত্রীকে। যার জন্য কখনো ওজন বাড়াতে হয় আবার কখনো কমাতে হয় সেটি।...

মোদির জন্মদিনে শুভেচ্ছা আসেনি চীন ও পাকিস্তান থেকে

৭০তম জন্মবার্ষিকীতে পদার্পণ করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১৭ সেপ্টেম্বর গতকাল বৃহস্পতিবার জীবনের ৭০তম বার্ষীকিতে পা রাখলেন এই নেতা । এসময় জন্মদিবসে দেশ বিদেশের...

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে-বিদেশে যে যেখানেই আছেন সবাইকে বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। 

বিজ্ঞাপন

আজ সোমবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় জাতির উদ্দেশে দেওয়া ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দের নববর্ষের শুভেচ্ছা। দেশে-বিদেশে যে যেখানেই আছেন সবাইকে জানাই বাংলা নববর্ষের শুভেচ্ছা। শুভ নববর্ষ।

শেখ হাসিনা বলেন, বাংলা নববর্ষের প্রাক্কালে আমি গভীর শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করছি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে। শ্রদ্ধা জানাচ্ছি জাতীয় চার নেতার প্রতি। স্মরণ করছি মুক্তিযুদ্ধের ৩০ লাখ শহিদ এবং ২ লাখ নির্যাতিত মা-বোনকে। শ্রদ্ধা জানাচ্ছি সকল বীর মুক্তিযোদ্ধাকে। 

‘আমি স্মরণ করছি ১৯৭৫ সালের ১৫ই আগস্টের কাল্রাতে ঘাতকদের হাতে নিহত আমার মা বেগম ফজিলাতুন নেছা মুজিব, তিন ভাই- মুক্তিযোদ্ধা ক্যাপ্টেন শেখ কামাল, মুক্তিযোদ্ধা লেফটেন্যান্ট শেখ জামাল ও দশ বছরের ছোট্ট শেখ রাসেলকে- কামাল ও জামালের নবপরিণীতা বঁধু – সুলতানা কামাল ও রোজী জামাল, আমার চাচা মুক্তিযোদ্ধা শেখ আবু নাসেরসহ সকল শহিদকে।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাঙালির সর্বজনীন উৎসব বাংলা নববর্ষ। প্রতিটি বাঙালি আনন্দ-উল্লাসের মধ্য দিয়ে উদযাপন করে থাকেন এই উৎসব। এ বছর বিশ্বব্যাপী প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের মহামারির কারণে পয়লা বৈশাখের বহিরাঙ্গণের সকল অনুষ্ঠানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এটা করা হয়েছে বৃহত্তর জনস্বাস্থ্যের কথা বিবেচনা করে। কারণ, ইতোমধ্যেই এই ভাইরাস আমাদের দেশেও ভয়াল থাবা বসাতে শুরু করেছে। 

‘ইতঃপূর্বে জাতির পিতার জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধন অনুষ্ঠান এবং স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানও জনসমাগম এড়িয়ে রেডিও, টেলিভিশন এবং ডিজিটাল মাধ্যমে সম্প্রচার করা হয়েছে। পয়লা বৈশাখের অনুষ্ঠানও আমরা একইভাবে উদযাপন করবো।’

বিজ্ঞাপন

প্রতিনিয়ত নতুন খবর পেতে চোখ রাখুন ফেইজবুক পেইজে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সম্পর্কিত পোস্ট