শিশু-কিশোরদের মসজিদে যাওয়ার নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার

Must Try

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আরও ২২ জনের মৃত্যু

দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে আরও নতুন করে ১ হাজার ৫৪১ জন রোগী শনাক্ত হয়েছেন। এসময় করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ২২ জনের। এ নিয়ে...

সিক্স প্যাকের রহস্য ফাঁস করলেন আরিফিন শুভ

চরিত্রের প্রয়োজনে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রূপ ধারণ করতে হয় একজন অভিনেতা বা অভিনেত্রীকে। যার জন্য কখনো ওজন বাড়াতে হয় আবার কখনো কমাতে হয় সেটি।...

মোদির জন্মদিনে শুভেচ্ছা আসেনি চীন ও পাকিস্তান থেকে

৭০তম জন্মবার্ষিকীতে পদার্পণ করলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ১৭ সেপ্টেম্বর গতকাল বৃহস্পতিবার জীবনের ৭০তম বার্ষীকিতে পা রাখলেন এই নেতা । এসময় জন্মদিবসে দেশ বিদেশের...

এইচএসসি পরীক্ষার বিষয়ে যা জানালো আন্তঃশিক্ষা বোর্ড

করোনা ভাইরাসের কারণে চলতি বছরের এইচএসসি পরীক্ষা এখনো অনুষ্ঠিত হয় নি। তবে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা কবে ও কীভাবে নেয়া হবে সে বিষয়ে সিদ্ধান্ত...

করোনাভাইস ও পূর্ব থেকে নিসেধাজ্ঞা জারি কারণে মা-বাবার সঙ্গে মসজিদে যাওয়া থেকে এতোদিন বঞ্চিত ছিলো উজবেকিস্তানের শিশু-কিশোররা। অবশেষে মধ্য এশিয়ার মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশ উজবেকিস্তানে শিশু ও কিশোরদের মসজিদে নামাজ আদায়ের ওপর থেকে অঘোষিত নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

করোনাভাইরাসের কারণে মসজিদে নামাজ আদায়ে আরোপিত নিষেধজ্ঞা প্রত্যাহারের সঙ্গে মিলিয়ে চলতি সপ্তাহান্তে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এ ঘোষণা দিয়েছে।

নির্দেশনায় বলা হয়, বাবা-মা, ভাই এবং ঘনিষ্ঠ আত্মীয়দের সঙ্গে শিশু-কিশোররা মসজিদে যেতে পারবে।

আলজাজিরা জানায়, প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ইসলাম কারিমভের আমলে প্রথমবারের মতো এই অঘোষিত নিষেধজ্ঞা জারি করা হয়েছিল।

অবশ্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের টেলিগ্রাম চ্যানেলে পোস্ট করা এক ভিডিওতে জোর দিয়ে বলা হয়েছে, শিশু-কিশোরদের মসজিদে নামাজ আদায়ে নিষেধাজ্ঞার কোনো আইন নেই।

এই নিষেধজ্ঞা কার্যত কট্টর ধর্মনিরপেক্ষ কারিমভের আমলে আরোপ করা হয়েছিল এবং ২০১৬ সালে তার মৃত্যুর পরও সেটা বহাল ছিল।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ২০১৯ সালের ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক প্রতিবেদনে বলা হয়, কর্তৃপক্ষের কাছে শিশু-কিশোরদের মসজিদে যাওয়া, মেয়েদের হিজাব পরিধান এবং ছেলেদের দাড়ি রাখার অনুমতি চাওয়ায় গত বছর দুই ব্লগারকে আটক করে পুলিশ।

কমিউনিস্ট সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে স্বাধীনতা লাভের প্রায় ৩০ বছর পরও উজবেকিস্তান কট্টর ধর্মনিরপেক্ষ। দেশটির সরকারের জন্য ধর্ম একটি স্পর্শকাতর বিষয়।

নিজের একনায়কতান্ত্রিক সরকার বহাল রাখলেও প্রেসিডেন্ট শাভকাত মিরজিয়োয়েভ কিছু রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক সংস্কার এনেছেন।

প্রেসিডেন্ট কারিমভের সরকারে ১৩ বছরপ্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করে শাভকাত। প্রকাশ্যে করিমভের প্রতি সম্মান প্রদর্শন অব্যাহত রাখলেও তার আমালের চরম নিপীড়নমূলক কিছু নীতিতে পরিবর্তন এনেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

প্রতিনিয়ত নতুন খবর পেতে চোখ রাখুন ফেইজবুক পেইজে

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সম্পর্কিত পোস্ট